বাংলা ইউটিউবের নতুন নক্ষত্র Bankura Memes Shorts এর উঠে আসার গল্প

0
4078
Bankura Memes Shorts

Bankura Memes Shorts এর উঠে আসার গল্প : বিগত বেশকিছু বছর ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনার শীর্ষে থেকেছে ‘Bankura Memes’ নামে একটি ফেসবুক পেজ। ‘ডার্ক হিউমার’ নিয়ে পোস্ট করার কারণে এই পেজটি নিয়ে বেশ হুলুস্থুল হয়েছে একটা সময়। নেটিজেনদের মধ্যে কার্যত দুটি ভাগ হয়ে গেছিল ‘বাঁকুড়া মিমস’ কে নিয়ে। একদল এই পেজের মিম গুলোকে শুধুমাত্র নিছক মজা হিসেবেই দেখতো আরেকদল মনে করতো মজার বাইরে গিয়ে পেজটি এমন কিছু স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে ঠাট্টা তামাশা করছে যা আসলে মানুষের মূল্যবোধ নিয়ে প্রশ্ন তুলে দেয় এবং মিম গুলি আসলে বিকৃত মানসিকতার। কেউ কেউ নিজের পছন্দের জেলা ‘বাঁকুড়া‘র নামে এমন নোংরামি বরদাস্ত করতে পারেনি।

বারবার স্বমহিমায় ফিরে আসা :

তবে যাই হোক মানুষের চর্চায় ‘বাঁকুড়া মিমস’ যে সবসময় থাকতো সেকথা বলাই বাহুল্য। এরপর নেটিজেনদের থেকে বারবার রিপোর্ট খেয়ে একাধিক বার উড়ে গেছে পেজ এবং তারপরে তা স্বমহিমায় ফিরে এসেছে। এরপরে অবশ্য নিজেদের ঠাট্টা তামাশার বহর কে একটি নির্দিস্ট গন্ডির মধ্যে সীমাবদ্ধ রেখে পেজটি যাতে সকলে তা গ্রহণ করতে পারে। এই পেজের নেপথ্যে যে রয়েছে সেই উন্মেষ গাঙ্গুলি (Unmesh Ganguly) এখন অবশ্য নিছক মিম নিয়ে আর থেমে নেই। ইউটিউবে ‘Bankura Memes Shorts’ নামে একটি চ্যানেল খুলে সেখানে নানারকম ভিডিও আপলোড করে সে।

এমনিতেই সাম্প্রতিক সময়ে নবপ্রজন্মের মধ্যে ইউটিউবের বেশ রমরমা। বহু ছেলেমেয়ে ইউটিউবকে তাদের ফুল্টাইম কেরিয়ার অপশন হিসবে বেছে নিয়েছে। বাংলার যে গুটিকয়েক ইউটিউব চ্যানেল তরতরিয়ে বেড়ে উঠেছে উন্মেষের চ্যানেল তার মধ্যে অন্যতম। বন্ধু বান্ধবদের নিয়ে নিজেই স্ক্রিপ্ট লিখে, অভিনয় করে তা সম্পাদনা করে আপলোড কাজটা যে মোটেই সহজ নয় তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা।

ফেসবুকের মিম পেজের সময় থেকেই ‘Bankura Memes’ এর স্পেশ্যালিটি ছিল সমাজের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে বিদ্রূপ। ট্রোলের আড়ালে কোন স্পষ্ট বার্তা দেওয়া যা আপাতদৃষ্টিতে চোখে ধরা না দিলেও বিষয়টি সচেতন দর্শকদের ভাবতে বাধ্য করবে। ইউটিউবে এসেও সেই ধারা বজায় রাখার চেষ্টা করেছেন উন্মেষ। কাজের সূত্রে মুম্বাইয়ে সহকারী পরিচালকের কাজ করে আসায় সিনেমা বানানোর বিষয়ে সে একদমই আনাড়ি নয়, তবে সময়ের সাথে সাথে অভিজ্ঞতা তাকে আরো বেশি অভিজ্ঞ করেছে এবং এখনও সে শিখছে।

Bankura Memes Shorts চ্যানেলের ভিডিও গুলির স্ক্রিপ্টও বেশ অন্যরকম এবং হাসির উদ্রেক করে মানুষের মনে। সম্প্রতি তারা নিজেদের ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করতে শুরু করেছে একটি ওয়েব সিরিজ যা তারা নিজেরাই লিখে নিজেরাই অভিনয় করেছে। লক্ষাধিক মানুষ এই চ্যানেলের সঙ্গে নিজেদের জুড়ে দিয়েছেন। তারা যে প্রতিবারই উন্মেষ এবং তার টিমের থেকে আলাদা কিছু পেয়ে থাকেন সেকথা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। আগামী দিনে তারা আরো বেশি মানুষকে নিজেদের সঙ্গে জুড়তে পারবে এবং নিজেদের কন্টেন্টের মানকে আরো উন্নত করে ভালো ভালো কন্টেন্ট আমাদের উপহার দেবে সেকথা বলাই যায়।

কেমন লাগলো অবশ্যই জানান

SHARE